ঢাবি ভিসিকে চ্যালেঞ্জ

প্রতিনিধি | শিক্ষাঙ্গণ

বৃহস্পতিবার ১৬ মার্চ ২০১৭|১০:২৮:৩৩ মি.

''খাতা না দেখেই চূড়ান্ত ফল দেয় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়'' মর্মে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

 

বুধবার জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ, তথ্য ও পরামর্শ দফতরের এক প্রতিবাদলিপিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের বক্তব্যকে ''সম্পূর্ণ অসত্য, মনগড়া, উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ও বিদ্বেষপ্রসূত'' বলে উল্লেখ এবং তাঁকে তাঁর বক্তব্যের সমর্থনে সুনির্দিষ্ট তথ্য-প্রমাণ উপস্থাপনের জন্য চ্যালেঞ্জ দিয়ে বলা হয়, অন্যথায় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বাধ্য হবে।

 

প্রতিবাদলিপিতে বলা হয়, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় বর্তমানে প্রায়-সম্পূর্ণ অনলাইনের মাধ্যমে পরিচালিত এবং পরীক্ষা গ্রহণ ও ফল প্রকাশসহ এর যাবতীয় কর্মকাণ্ড অত্যন্ত স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার সাথে সম্পন্ন হচ্ছে। পরীক্ষার উত্তরপত্র মূল্যায়ণ না করে ফল প্রকাশের প্রশ্নই ওঠে না।

 

এতে আরো বলা হয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য “খাতা না দেখেই চূড়ান্ত ফল দেয় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়” মর্মে যে মন্তব্য করেছেন, সে সম্বন্ধে তিনি কোন শিক্ষাবর্ষের, কোন পরীক্ষার, কোন বিষয়ে ফল প্রকাশ হয়েছে, এর সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্য-প্রমাণ উপস্থাপন করেননি। অপর একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাপারে ঢালাওভাবে মনগড়া এরূপ বক্তব্য প্রদান উপাচার্যের দায়িত্বশীল পদে আসীন একজন ব্যক্তির পক্ষে কতদূর সমীচীন, তা কারো পক্ষে না বুঝার কথা নয়।

 

প্রতিবাদলিপিতে বলা হয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য যে একজন চরম জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়বিদ্বেষী, তাঁর এ বক্তব্য থেকে সেটি স্পষ্ট।

 

প্রতিবাদলিপিতে ড.আরেফিন সিদ্দিককে তাঁর বক্তব্যের সমর্থনে সুনির্দিষ্ট তথ্য-প্রমাণ উপস্থাপনের জন্য চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়ে বলা হয়, অন্যথায় তাঁর এ অসত্য, মনগড়া, উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ও বিদ্বেষপূর্ণ বক্তব্যের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বাধ্য হবে।

 

উল্লেখ্য, গত ১৪ মার্চ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. আরেফিন সিদ্দিক সরকারি তিতুমীর কলেজের এক অনুষ্ঠানে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় সম্বন্ধে এসব মন্তব্য করেন বলে প্রতিবাদলিপিতে বলা হয়।

পাঠকের মন্তব্য Login Registration